মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

বিস্তারিত

১৭৬৫খ্রিষ্টাব্দে ইংরেজ সেনাপতি মিঃ কোট্রিল ঘোড়াঘাটের শেষ মুসলিম ফৌজদার করমআলী খানকে পরাজিত করে এই অঞ্চলে ইংরেজ শাসন প্রতিষ্ঠা করেন। এ অঞ্চলেপ্রশাসনিক কাজের সুবিধার্থে ইংরেজরা ১৭৮৬ সালে নতুন জেলা গঠন করে এবং ১৭৯৩সালে দিনাজপুরে নবসৃষ্ট জেলার দপ্তর স্থাপন করে। দিনাজপুরের কালেক্টর মিঃএইচ জে হ্যাচ (১৭৮৬-১৭৯৩ পর্যন্ত কালেক্টর ছিলেন) এর আমলে এখানের প্রথমনিজস্ব কালেক্টরেট ভবন নির্মিত হয় বর্তমান বাহাদুর বাজারস্থ গোলকুঠিবাড়ীতে। দিনাজপুরে ইংরেজ শাসন ও জেলা কালেক্টরেট নির্মিত হওয়ায় এবং সেইসঙ্গে সুবিন্যস্ত শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তিত হওয়ায় তখন থেকে আধুনিক জেলাশহরটির গড়ন শুরু হয় রাজাদের দেয়া কয়েকটি মৌজার উপর। রাজবাড়ী থেকে সমস্তনথিপত্র প্রত্যাহার করে গোলকুঠি ভবনে স্থাপন করা হয়। মুগল আমলের ঘোড়াঘাটনগর তখন সম্পূর্ণভাবে পরিত্যক্ত হয়। নবস্থাপিত দিনাজপুর শহর জেলা শাসনেরকেন্দ্র ও সবকিছুর কর্মস্থলে পরিণত হতে শুরু করে। ১৮৩৩ থেকে ১৮৭০ সালপর্যন্ত দিনাজপুরের বিভিন্ন অংশ পূর্ণিয়া, রংপুর ও রাজশাহীর মধ্যেঅন্তর্ভুক্ত হয়। বর্তমানে উপজেলা প্রশাসন মনোরম ও নিরিবিলি স্থানে অবস্থিত।